কৃষক বিক্ষোভের মাঝেই ভূমিকম্পে কাঁপল রাজধানী দিল্লি

কৃষক বিক্ষোভের মাঝেই ভূমিকম্পে কাঁপল রাজধানী দিল্লি
Image source

মাটি কেঁপে উঠল রাজধানীর। মাঝারি মানের ভূমিকম্প অনুভূত হল দিল্লিতে। ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলজি জানাচ্ছে এই কম্পনের উৎসস্থল দিল্লি থেকে ৪৮ কিমি দূরে গুরুগ্রামে। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৪.২। রাত ১১.৪৬ মিনিটে এই কম্পন অনুভূত হয়।

এদিকে, ৮ই ডিসেম্বর সকাল থেকে অল্প থেকে মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্পে একাধিকবার কেঁপে ওঠে গুজরাতের গির সোমনাথ জেলা। ঘন্টা কয়েকের ব্যবধানে ১৯ বার কম্পন অনুভূত হয় বলে খবর।

তবে সম্পত্তি নষ্ট বা প্রাণহানির মতো কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানায় স্থানীয় প্রশাসন। গান্ধীনগরের ইনস্টিটিউট অফ সিসমোলজ্যিকাল রিসার্চ জানায় এই ধরণের ঘটনাকে মনসুন ইনডিউসড সিসমিসিটি বলে ব্যাখ্যা করা হয়।

প্রতি দু তিন মাস অন্তর সৌরাষ্ট্র এলাকায় অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের ফলে মাটি আলগা হলে এই ধরণের ঘটনা ঘটতে পারে। এতে চিন্তার বা আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। রাত ১.৪২ মিনিট থেকে কম্পন শুরু হয়। কম্পনের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ১.৭ থেকে ৩.৩। সৌরাষ্ট্রের গির সোমনাথ জেলার পূর্ব উত্তর এলাকায় কম্পনের উৎস ছিল।

দুদিন আগেই বড়সড় ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ফিলিপাইনসের মিনদানাও। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৬.৩। ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলজি বুধবার জানিয়েছে বুধবার সকাল ৪.৫২ মিনিটে কেঁপে ওঠে এই দেশ। স্থানীয় সময় ছিল ৭.৩৭ মিনিট।

তবে বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। ইউএস সার্ভেলেন্স সেন্টার জানিয়েছে এই কম্পনের উৎস মাটির ১০ কিমি গভীরে। স্থানীয় প্রশাসনিক কর্তারা জানান মিনদানাও এলাকায় কম্পনের পরে বাড়ি থেকে সব বাসিন্দা বেড়িয়ে পড়েন। তীব্র আতঙ্ক ছড়ায়।

ইউএস সার্ভেলেন্স সেন্টারের দাবি এই কম্পন অনুভূত হয় মিনদানাও দ্বীপে। কলোম্বিও শহর থেকে ৭.৭ কিমি দূরে ছিল ভূকম্পের উৎস।


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য