এত দামি! হিরে-জহরতে তৈরি ইটালীয় সংস্থার হাতব্যাগটি সত্যিই অনন্য

এত দামি! হিরে-জহরতে তৈরি ইটালীয় সংস্থার হাতব্যাগটি সত্যিই অনন্য
Image source

ক্লাচ হোক কিংবা সাবেকি ভ্যানিটি ব্যাগ, টোটে কিংবা ঝোলাব্যাগ – রকমারি ব্যাগ সংগ্রহে রাখা যাঁদের শখ, তাঁদের জন্য সুখবর নিয়ে এল ইটালির এক নামী ফ্যাশন সংস্থা। না, শুধু সুখবর বললে পুরোটা বলা হয় না। ব্যাগের প্রতি অদম্য আকর্ষণকারীদের জন্য হিরে-জহতের মোড়া হাতব্যাগ তৈরি করে ফেলল ইটালীয় সংস্থা Boarini Milanesi.

নিজেদের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ব্যাগের খুঁটিনাটি জানিয়েছে তারা। সমুদ্রনীল রঙা ব্যাগটি দেখলে সত্যিই তাক লেগে যাবে। জানা গিয়েছে, অ্যালিগেটরের চামড়া ব্যবহার করা হয়েছে এই ব্যাগ তৈরিতে। তাকে আবার খানিকটা ঘষেমেজে অর্থাৎ যাতে জেল্লা ঠিকরে বেরয়, তেমন উপযোগী করে তৈরি হয়েছে এই ব্যাগটি।

এরপর নকশার জন্য তাতে কী কী ব্যবহার করা হয়েছে জানেন? হিরে, সোনা তো বটেই, নীলকান্তমণি! হ্যাঁ, ঠিকই পড়লেন। হোয়াইট গোল্ডের মোট ১০ টি প্রজাপতি রয়েছে ব্যাগ ঘিরে। তার মধ্যে ৩টি প্রজাপতিকে সাজানো হয়েছে নীলকান্তমনিতে। আর ৪টি সেজে উঠেছে হিরে দিয়ে। বাকি তিনটি প্রজাপতির নকশায় ব্যবহৃত হয়েছে আরেক মূল্যবান রত্ন। গোটা ব্যাগটিতে যেন সমুদ্রের সৌন্দর্য।

না, শুধু এখানে শেষ হয়নি ব্যাগের বিশেষত্ব বর্ণনা। যিনি এই বহুমূল্য ব্যাগের মালকিন হবেন, তাঁর নাম খোদাই করা থাকবে ব্যাগে। শুধু কেনার পর ডিজাইনারকে নামের বানান এবং কীভাবে নামটি লেখাতে চান, তা বলে দিলেই হবে। বাকি কাজ সংস্থার। Boarini Milanesi-র সহ-প্রতিষ্ঠাতা ক্যারোলিনা জানাচ্ছেন, তাঁর বাবার স্মৃতিতে এই ব্যাগটি তৈরি করেছেন।

এ যে সৌন্দর্য কিংবা ঐশ্বর্যের ঝলকানি, তা নয়। ব্যাগের প্রতিটি উপকরণের পৃথক গুরুত্ব আছে। যেমন নীলকান্তমণি সমুদ্রে গভীরতার চিহ্ন, হিরে স্বচ্ছতার, সোনা পবিত্রতার প্রতীক। ফলে হাতব্যাগটি যিনি ব্যবহার করবেন, তাঁর নিজস্ব ব্যক্তিত্বও প্রতিভাত হবে এর মাধ্যমে, এমনই মনে করেন ক্যারোলিনা।

কী ভাবছেন? সংগ্রহে রাখবেন নাকি দারুণ এই হাতব্যাগটি? বেশ তো রাখুন না, তবে তার আগে দামটা একবার জেনে নিন। Boarini Milanesi-র তৈরি হাতব্যাগটির দাম ৫.৩ মিলিয়ন পাউন্ড, ভারতীয় মুদ্রায় হিসেবনিকেশ করলে অঙ্কটা দাঁড়ায় গুনে গুনে ৫২ কোটি ১৫ লক্ষ ২৮ হাজার ৩০৭ টাকা! চমকে গেলেন?


সুত্র : সংবাদপ্রতিদিন

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য