যে কথা মেয়েদের কখনও বলবেন না

যে কথা মেয়েদের কখনও বলবেন না
Image source

একজন মানুষকে সম্পূর্ণভাবে বুঝতে পারা কখনও সম্ভব নয়। কিন্তু চেষ্টা করলে অনেকটাই পারা যায়। তবে প্রেমের ক্ষেত্রে অনেক কিছু মেনে চলতে হয়। না হয়, ঝগড়া লেগেই থাকে। তবে কিছু কথা কখনও মেয়েদের বলার ভুল করবেন না। কোন সে কথা? আসুন জেনে নেয়া যাক-


১. তুমি খুব ভোজনরসিক:

আপনার প্রেমিকা হয়তো খুব হালকা এবং চটপটে। সব ক্ষেত্রেই সে অকপট। বলেই ফেলে এখন এটা খেতে ইচ্ছে করছে। কিন্তু এটাকে অন্যভাবে দেখার কোনো সুযোগ নেই। এটা নিয়ে কোন খোটা দেওয়া বা ঠাট্টা করা একদমই উচিৎ নয়। তা ছাড়া আপনি নিজে যখন খাওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ দেখান তখন কিন্তু সে কিছুই বলে না, বরং উৎসাহ দেখায়। তাই পারলে খাবারের প্রসঙ্গে কিছু মন্তব্য এড়িয়ে চলুন। খাবার সামনে রেখে কখনো বলবেন না, ‘সবটাই খেয়ে নেবে?’


২. অবমাননাকর গালি:

শুধু প্রেমিকা নয় যে কোনো মানুষকে অন্য কোনো প্রাণীর সঙ্গে তুলনা করা, উদাহরণ দেওয়া কিংবা কোনো প্রাণীর নাম উল্লেখ করে গালি দেওয়া- সেটা অত্যন্ত অবমাননাকর। এমনকি আপনি যদি সত্যিকারভাবে কখনও তার দ্বারা নিপীড়িত হন- তবু এ ধরনের কোনো শব্দ প্রয়োগ করবেন না। এটি করা মানেই কিন্তু তাকে আপনি শুধু বিদ্রুপ করলেন না- তাকে ছোট করলেন এবং প্রকারান্তরে এতে আপনি নিজেই ছোট হলেন।


৩. কথায় কথায় সাবেক প্রেমিকা:

জগতে সব মানুষেরই নিজস্বতা রয়েছে। সবার রয়েছে একটি নিজস্ব সত্ত্বা। হতে পারে, আপনার বর্তমানের চেয়ে আগের প্রেমিকাই ভালো ছিল। কিন্তু এটি বর্তমান প্রেমিকাকে বলার দরকারটা কি? আপনি আপনার নিজের ভেতর রাখুন না বিষয়টি। তাছাড়া, এর দ্বারা কেবল আপনি আপনার প্রেমিকাকে আগের প্রেমিকার সাথে তুলনা করে তাকে ছোট করতে চাচ্ছেন। সুতরাং, এই প্রবণতা দূর করে ফেলুন।


৪. তুমি সবসময় এটা কর:

আপনি আসলে সত্যবাদী হতে ভয় পান বলেই এমন আগ্রাসী হয়ে ওঠেন। এ ধরনের আচরণে আপনার প্রেমিকা কেবল হতাশই হন না বরং আপনি আপনার প্রেমিকাকে এটাই ভাবতে সুযোগ দেন যে আপনি বরাবরই ভুল করেন এবং এটি আপনার একটি বড় দোষ। এটি তর্কে অতীতের অনেক উপাদানকে টেনে আনার প্রবণতাকে বাড়িয়ে দেয়। এবং শেষ পর্যন্ত আপনি আসলে কলহ থেকে বের হয়ে আসতে পারেন না। এতে সম্পর্কের প্রশ্নে আপনার খারাপ দিকই উন্মোচিত হতে থাকে।


৫. তুমি মোটেও সুন্দর না:

কখনও কখনও সে কিছু নিষ্পাপ প্রশ্ন করে আপনাকে প্রলুব্ধ করে যেমন: তুমি কি মনে করো ওই মেয়েটি সুন্দর? সে ক্ষেত্রে আপনি এমনভাবে কাঁধ ঝাঁকাবেন যেন এ আর এমন কি। সব নারীই চায় তার প্রেমিক বা স্বামীর কাছ থেকে প্রশংসা শুনতে। তাই আপনি তার প্রশংসা না করেন অন্তত এমন কিছু বলবেন বা আচরণে এমন কিছু প্রকাশ করবেন না যাতে সে মনে করে আপনার চোখে সে সুন্দর নয়।


সুত্র : দেশেবিদেশে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য