দেশে ফিরেই বাবা’র ভুমিকায় হার্দিক

দেশে ফিরেই বাবা’র ভুমিকায় হার্দিক
Image source

অস্ট্রেলিয়ায় সীমিত ওভারের সিরিজ শেষ হতেই দেশে ফিরেছেন হার্দিক পান্ডিয়া-সহ টেস্টে সিরিজের দলে না-থাকা ভারতীয় ক্রিকেটাররা৷ বাড়ি ফিরেই বাবা’র কর্তব্য পালনে ব্যস্ত হয়ে পড়েন টিম ইন্ডিয়ার অল-রাউন্ডার হার্দিক৷

চলতি সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ায় শেষ হয়েছে সীমিত ওভারের ক্রিকেট৷ ওয়ান ডে সিরিজ হারলেও তিন ম্যাচের টি-২০ জিতেছে কোহলি অ্যান্ড কোং৷ এই সিরিজ জয়ে বড় অবদান ছিল হার্দিকের৷ সাদা বলের ক্রিকেট এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের টেস্ট দলে জায়গা হয়নি৷ ফলে দেশে ফিরেছেন হার্দিক এবং টেস্ট দলে না-থাকা ভারতীয় দলের ক্রিকেটাররা৷

বাড়ি ফিরে দুধের বোতল নিয়ে ছেলেকে খাওয়াতে বসে পড়েন ভারতীয় দলের এই ক্রিকেটার৷ শনিবার সেই ছবি টুইটারে পোস্ট করে হার্দিক লেখেন, ‘From national duty to father duty’. ছবিতে দেখা গিয়েছে দুধের বোতল নিয়ে ছেলে অগ্যস্তাকে খাওয়াচ্ছেন হার্দিক৷

ছেলের জন্মের কিছুদিনের মধ্যেই আইপিএল খেলতে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী পাড়ি দিয়েছিলেন হার্দিক৷ আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণে পারফর্ম করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে চ্যাম্পিয়ন করাতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন হার্দিক৷ এর পর দুবাই থেকেই অস্ট্রেলিয়ার বিমান ধরেন অস্ট্রেলিয়া সফররত ভারতীয় ক্রিকেটাররা৷

অস্ট্রেলিয়া সফরেও সীমিত ওভারের সিরিজের দারুণ পারফর্ম করেন টিম ইন্ডিয়ার এই ডানহাতি অল-রাউন্ডার৷ তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ২১০ রান করেন৷ যার মধ্যে দু’বার ৯০-এর ঘরে রান করেছেন৷ আর তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে তাঁর সংগ্রহ ৭৮৷ তবে ছ’টি ম্যাচের মধ্যে দু’বার ‘ম্যান অফ দ্য’ পুরস্কার পেয়েছেন হার্দিক৷

স্ত্রী নাতাশা স্ট্যানকোভিচ জানিয়েছেন, প্রায় চার মাস পর ছেলেকে দেখলেন হার্দিক৷ যখন আইপিএল খেলতে হার্দিক আমিরশাহী রওনা হয়েছিলেন তখন তাঁর ছেলের বয়স ছিল মাত্র ১৫ দিন৷ তারপর প্রথমবার ছেলকে দেখলেন তিনি৷ এ প্রসঙ্গে হার্দিক বলেন, ‘ছেলকে খুব মিস করছিলাম৷ আমি যখন বাড়ি ছেলেছিলাম, তখন ছেলের বয়স ছিল মাত্র ১৫ দিন৷ কিন্তু এখন আমার ছেলের বয়স চার মাস৷ বাড়ি ফেরার অপেক্ষা করছিলাম৷ এটাই আমার কাছে জীবনের সেরা সময়৷’


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য