‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে মৃত্যু কর্মীর, প্রতিবাদে উত্তরবঙ্গে বনধের ডাক বিজেপির

‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে মৃত্যু কর্মীর, প্রতিবাদে উত্তরবঙ্গে বনধের ডাক বিজেপির
Image source

‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে গিয়ে গন্ডগোলের জেরে এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ বনধের ডাক বিজেপির। মঙ্গলবার ১২ ঘণ্টার উত্তরবঙ্গ বনধের ডাক বিজেপির। লাঠির আঘাতেই বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের মৃত্যুর অভিযোগ। তবে বিজেপি সেই দাবি মানতে চায়নি। পুলিশের ছোড়া রবার বুলেট গায়ে লেগেই ওই ব্যক্তির মৃত্যু বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

সোমবার দুপুরে উত্তরবঙ্গে রাজ্যের মুখ্য প্রশাসনিক ভবন ‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে নামে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় শিলিগুড়ির তিনবাত্তি মোড়। আচমকা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করেন যুব মোর্চার কর্মীরা। পুলিশ-বিজেপি কর্মী ধস্তাধস্তিতে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয় এলাকায়। মিছিল ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান, কাঁদানে গ্যাস, লাঠিচার্জ করে পুলিশের। পাল্টা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে বিজেপি কর্মীরা।

অভিযোগ, পুলিশের লাঠির ঘায়ে মাথায় চোট পান উলেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃতের ভাইয়ের কথায়, “দাদা ব্যারিকেডের কাছে চলে গিয়েছিল।

সেই সময় তিনটে রবার বুলেট গায়ে লাগে। টিয়ার গ্যাসের জন্য শ্বাসও নিতে পারছিল না। কোনওমতে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও আর বাড়ি ফেরাতে পারলাম না।” এদিকে, দলীয় কর্মীর মৃত্যু ঘিরে প্রশাসনের দিকেই আঙুল তুলেছে বিজেপি।

বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ পুলিশের ছোড়া রবার বুলেটের আঘাত সহ্য করতে না পেরেই মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। এদিকে, দলীয় কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে মঙ্গলবার ১২ ঘণ্টার উত্তরবঙ্গ বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি।


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য