ঘিরছে মেঘ, ক্রমশ এগিয়ে আসছে সাইক্লোন ‘বুরেভি’

ঘিরছে মেঘ, ক্রমশ এগিয়ে আসছে সাইক্লোন ‘বুরেভি’
Image source

রাতেই শ্রীলঙ্কা পার করেছে সাইক্লোন ‘বুরেভি’। এবার ক্রমশ এগিয়ে আসছে ভারতের দিকে। ইতিমধ্যেই মেঘে আচ্ছন্ন আকাশ আগাম সতর্কবার্তা দিচ্ছে। সাইক্লোনের জেরে তামিলনাড়ু, দক্ষিণ কেরলের একাধিক জায়গায় বৃষ্টিপাত হবে বলে জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যেই ওইসব জায়গায় মেঘলা আকাশ।

বুধবাররাত সাড়ে ১০ টা থেকে সাড়ে ১১ টার মধ্যে শ্রীলঙ্কা পার করেছে ওই ঘূর্ণিঝড়। সেইসময় গতিবেগছিল ঘণ্টায় ৮০ থেকে ৯০ কিলোমিটার। এই ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রস্থল শ্রীলঙ্কায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে পামবানের খুব কাছে এটি ৯০ কিলোমিটার গতিবেগে আছড়ে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কয়েকদিন আগেই তাণ্ডব চালিয়েছে সাইক্লোন নিভার। এরই মধ্যে ফের আরও এক সাইক্লোন। বঙ্গোপসাগরে ধেয়ে আসছে এই সাইক্লোন বুরেভি। প্রবল ঘূর্ণিঝড় নিভারের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত তামিলনাড়ু, পুদুচেরি। এখনও বৃষ্টি চলছে সমানে। সাইক্লোন থেমে যাওয়ার পরও নতুন করে শুরু হয়েছে বৃষ্টিপাত। জলমগ্ন হয়েছে বহু এলাকা।

এরপরেই নতুন করে ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস জারি করে মৌসম ভবন। আর সেই সাইক্লোন বুরেভি ক্রমশ শক্তি পাকিয়ে ধেয়ে আসছে। আইএমডি সূত্রে খবর বৃহস্পতিবার রাতে শ্রীলঙ্কার উপকূলে ট্রিঙ্কোমালিতে আছড়ে পড়তে পারে এই ঘূর্ণিঝড়। তারপর মান্নার উপকূলে তা ধেয়ে আসবে আসবে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

যদিও প্রতি মুহূর্তে সাইক্লোনের দিকে নজর রাখছে হাওয়া অফিস। আবহাওয়াবিদরা মনে করছেন যে, তামিলনাড়ুর কন্যাকুমারী ও পম্বনের মধ্যে দিয়ে বয়ে যেতে পারে এই সাইক্লোন। ঘন্টায় এর গতিবেগ হবে ১২০ এরও বেশি। অন্যদিকে, সাইক্লোনের প্রভাবে কেরলে আগামী দুদিন প্রবল বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা রয়েছে।

ইতিমধ্যেই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে না করা হয়েছে। সাইক্লোনের প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল থাকতে পারে। ইতিমধ্যে কেরল সহ একাধিক এলাকায় রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রশাসনের তরফেও ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন সমস্ত দফতরকে যুদ্ধকালীন পরিস্তিতিতে সংকট মোকাবিলার কাজ করতে নির্দেশ দিয়েছেন। মাথায় রাখতে হচ্ছে কোঙিড পরিস্থিতিকেও।

যাতে নতুন করে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্যে বিশেষ সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে প্রশাসনের তরফে। ইতিমধ্যেই দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য এসেছে এনডিআরএফ। ঝড়ের পরেই জরুরি পরিস্থিতিতে ঝাপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য