সীমান্তে ফের অনুপ্রবেশের চেষ্টা, BSF এর গুলিতে খতম দুই

সীমান্তে ফের অনুপ্রবেশের চেষ্টা, BSF এর গুলিতে খতম দুই
Image source

সীমান্তে ফের পাক অনুপ্রবেশ চেষ্টা। সতর্ক বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের গুলিতে খতম কমপক্ষে ২ জন। বিএসএফ জানিয়েছে, কুয়াশার সুযোগে দু’জন অনুপ্রবেশকারী সীমান্ত টপকানোর চেষ্টা করছিল। ওয়ার্নিং দেওয়ার পরেই গুলি চালানো হয় এবং এতে ২ জনের মৃত্যু হয়।

ঘটনার পরে বিএসএফের শীর্ষ কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর কথা। দুই অনুপ্রবেশকারীর কাছেই অস্ত্র থাকার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে আন্তর্জাতিক সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা তীব্র হয়েছে। এর আগে ২৩ নভেম্বর এক অনুপ্রবেশকারী সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছিল, সেসময় গুলিতে মৃত্যু হয় তাঁর।

একদিকে অনুপ্রবেশকারী, অন্যদিকে পাক সেনা। হিমশীতল কাশ্মীরে উভয়ের সঙ্গে লড়তে হয় ভারতীয় সেনাকে। বুধবার নিয়ন্ত্রণরেখায় বিনা প্ররোচণায় পাকিস্তানি সেনা গুলি চালায় বলে খবর। পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় সেনাও। ফলাফলে ভারতীয় সেনার হাতে খতম হয় দুই পাকিস্তানি সেনা।

প্রায় ২৪ ঘন্টা ধরে গুলির লড়াই চলে। পরে গুলি চালানো বন্ধ করে পাকিস্তান। তবে শুধু এদিনই নয়, চলতি বছরে একাধিকবার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান।

গত সপ্তাহেও পুঞ্চ জেলার মানকোটে সেক্টরে পাক সেনা ভারি গুলি বর্ষণ শুরু করে। এরই সঙ্গে চলে শেলিং। স্থানীয় গ্রামগুলি লক্ষ্য করে গুলি ও মর্টার ছোঁড়া হয় বলে খবর। বিনা প্ররোচনায় পাক সেনা গুলি চালায় বলে জানা গিয়েছে। প্রায় দু ঘন্টা ধরে টানা গুলির লড়াই চলে।

এদিকে, কিছুদিন আগেই চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত বললেন সীমান্তে যে কোনও ধরণের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে প্রস্তুত ভারত। এদিন রাওয়াত বলেন পাকিস্তান ও চিনের মোকাবিলা করতে পিছপা হবে না ভারত। দেশের জওয়ানরা তৈরি রয়েছে যে কোনও পরিস্থিতি সামলানোর জন্য। ভারতীয় সেনা যেমন সীমান্তে তৈরি, তেমনই পুরোপুরি প্রস্তুত নৌসেনা ও বায়ুসেনা।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি সম্পন্ন করে। তবে তা কখনই মেনে চলে না পাকিস্তান। বারবারই পাক সেনা বিনা প্ররোচনায় গুলি বর্ষণ শুরু করে।


সুত্র ঃ কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য