কয়লা পাচার কাণ্ডের তদন্তে বাংলা জুড়ে তল্লাশি ৩০০ সিবিআই অফিসারের

কয়লা পাচার কাণ্ডের তদন্তে বাংলা জুড়ে তল্লাশি ৩০০ সিবিআই অফিসারের
Image source

কয়লা পাচার কান্ডের তদন্তে জোরদার অভিযান সিবিআইয়ের। শনিবার সকাল থেকে বাংলার একাধিক জায়গায় তল্লাশি শুরু করেছে সিবিআই। কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, রানিগঞ্জ, দুর্গাপুর, আসানসোল–সহ রাজ্যের ৩০টি জায়গায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে এই মুহূর্তে।

কিছু নির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই সকাল থেকে শুরু হয়েছে এই তল্লাশি অভিযান। কয়লা পাচার কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালার বাড়ি এবং অফিস। এমনকী অনুপ মাঝির ঘনিষ্ঠদের বাড়িতেও চলছে সিবিআইয়ের ম্যারাথন তল্লাশি। শুক্রবারই সিবিআই বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

কয়লা পাচার কাণ্ডে অন্যতম পান্ডা লালা এখনও বেপাত্তা। বাংলায় কয়লা কেলেঙ্কারির পিছনে লালার ভূমিকা যথেষ্ট বলে জানতে পেরেছেন সিবিআই আধিকারিকরা। তাঁর অঙ্গুলিহেলনেই বেআইনি কয়লা আদান-প্রদান ঘটে বলে নির্দিষ্ট তথ্য রয়েছে সিবিআইয়ের কাছে। একদিকে যখন রাজ্যজুড়ে সিবিআই তল্লাশি চলছে অন্যদিকে তখন লালার খোঁজও চালাচ্ছে সিবিআই।

সেই মতো চলছে এই তল্লাশি অভিযান। জানা গিয়েছে, এদিন সকালে নিজাম প্যালেস থেকে সিবিআই আধিকারিকদের মোট ২২টি দল তদন্তে বেরিয়েছে। প্রায় আড়াইশো থেকে ৩০০ জন অফিসার তল্লাশিতে নেমেছেন।ওই আধিকারিকরাই বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন।

স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসনের সহযোগিতায় চলছে এই অভিযান। প্রসঙ্গত, কয়লা পাচার কাণ্ডে প্রথমে তদন্তে নামে আয়কর দফতর। তারা তদন্ত করে যে তথ্যপ্রমাণ বা নথি পেয়েছে সে সব জানতে চেয়ে আয়কর দফতরকে চিঠি দেয় সিবিআই। সেই ফাইল হাতে আসার পর এবার জোরকদমে তদন্তে নেমেছে সিবিআই–ও।

অন্যদিকে, কয়লা কেলেঙ্কারি রুখতে কোমর বেঁধে নেমেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা অর্থাৎ সিবিআইয়ের আধিকারিকরা। বাংলার পাশাপাশি আরও দুটি রাজ্যে এই মুহূর্তে তল্লাশি অভিযান চলছে। একেবারে গোপনে ওই দুই রাজ্যে এই মুহূর্তে চলছে এই তল্লাশি। সেখানেও প্রায় ২৫০ থেকে ৩০০ জনের সিবিআই একটি দল ভাগ হয়ে এই মুহূর্তে তল্লাশি চালাচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।


সিবিআই-য়ের এই তল্লাশি অভিযান দেশের অন্যতম বড় ‘সার্চ-অপারেশন’

উল্লেখ্য, কয়লার পাশাপাশি গরু পাচার-কান্ডের তদন্তও চালাচ্ছে সিবিআই। বাংলার একাধিক জায়গায় ইতিমধ্যে তল্লাশি শুরু করেছে।


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য