দশমীর মিষ্টির বাজারে দুধের দাম আকাশছোঁয়া

দশমীর মিষ্টির বাজারে দুধের দাম আকাশছোঁয়া
Image source - aajkaal

বিজয়া দশমীর ভারাক্রান্ত মন। সঙ্গে মিষ্টিমুখ, তার উৎপাদনের জন্য প্রয়োজন দুধ। দশমীর বাজারে যা দুইয়ে নিচ্ছে মিস্টান্ন বাজারের অর্থনীতিকে।

খোলা বাজারে গরু বা মোষের এক লিটার দুধের দাম কত? এটা ঘটনা, কিছুদিন আগেই বেড়েছে প্যাকেট দুধের দাম। মোটামুটি প্রতি লিটারে দুই থেকে চার টাকা পর্যন্ত দাম বাড়ানো হয়েছে। তার জেরে গরু এবং মোষের দুধের দামও ঊর্ধ্বগামী। কোম্পানি ভিত্তিতে সামান্য ফারাক থাকলেও মোটামুটি ৫০ থেকে ৫৬ টাকায় প্যাকেটজাত এক লিটার দুধ মেলে।

কিন্তু খোলা বাজারে গরু বা মোষের দুধ? তার দাম কত? কোনও ধরাবাঁধা নিয়ম নেই এবং বাজার বলছে এবার রেকর্ড দামে বিকিয়েছে দুধ। করোনা আবহে বিহারে কিছু লোক চলে যাওয়ার কারণে জোগানে টান পড়ায় কিছুদিন এক লিটারের দাম গিয়ে ঠেকেছিল ১০০ টাকা! অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি।

লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ

উৎসবের মরশুম চলছে। চলতি সপ্তাহে গরুর দুধ ৫৫ থেকে ৬০ এবং মোষের দুধ ৭০ টাকা পর্যন্ত লিটার পিছু বিকিয়েছে। দুধের দাম নিয়ন্ত্রণের কোনও সংস্থা নেই। তাই নেই কোনও বাঁধন। কলকাতায় দুধের জোগান দেয় জোড়াসাঁকো, নতুনবাজার, হাজরা ও শিয়ালদহের পাইকারি বাজার। ডানকুনি, খড়দহ, টিটাগড়, আমতলা, বারুইপুরের মতো শহরতলি থেকে আসেন খাটাল মালিকরা।

তাঁরা দুধ বিক্রি করেন প্রতিদিন নিত্যনতুন দামে। যেমন জোগান, তেমন দাম। শহর ও শহরতলি থেকে খাটাল উচ্ছেদের পর জোগান কিছুটা হলেও কম। সেই জোগান মেটায় ছোট মিষ্টি দোকানদার, ছানা ব্যবসায়ী এবং বিভিন্ন খাদ্য উৎপাদকদের চাহিদা। বলা ভাল, সেখান থেকেই কিনতে বাধ্য হন। এটাই নিয়ম। বড় ব্যবসায়ী বা মিষ্টি উৎপাদকরা অবশ্য বছরভরের জন্য একটি চুক্তি করে রাখেন। দাম ওঠানামার আঁচ তাঁদের গায়ে লাগে না।


সুত্র : আজকাল

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য