পুজোর আগেই খুলে গেল ইকো পার্ক, মানতে হবে করোনা বিধি

পুজোর আগেই খুলে গেল ইকো পার্ক, মানতে হবে করোনা বিধি
source - abindesignstudio

উৎসবমুখর বাঙালির কাছে আরও একটি বাড়তি পাওনা ইকো পার্ক৷ ১৭ অক্টোবর শনিবার থেকেই খুলে দেওয়া হল এই বিনোদন পার্কটি৷ এর আগে বৃহস্পতিবার থেকেই খুলে গিয়েছে নিকো পার্কও৷ ফলে পুজোয় মন্ডপ হপিংয়ের পাশাপাশি ঘুরে আসতে পারেন বিনোদন পার্কেও৷ তবে মানতে হবে করোনা বিধি৷

পুজো উপলক্ষে মিলছে বিশেষ ছাড়ও৷ যারা গাড়ি নিয়ে ইকো পার্কে আসবেন তাদেরকে আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত দিতে হবে না পার্কিং ফি৷ জানিয়েছেন হিডকো চেয়ারম্যান দেবাশিস সেন৷ প্রায় ৭ মাস বন্ধ থাকার পর খুলল ইকো পার্ক৷ তবে আগের মতই পার্কে ঢোকার আগে টিকিট কাউন্টারে এসে টিকিট কাটতে হবে৷

এখানে অনলাইনে টিকিট কাটার ব্যবস্থা নেই৷ পার্কে প্রবেশ করার সময় প্রত্যেককে থার্মাল চেকিং ও স্যানিটাইজার করে ভিতরে প্রবেশ করতে হবে৷ মাস্ক ছাড়া পার্কে ঢোকতে দেওয়া হবে না৷

প্রত্যেকের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক৷ পার্কের ভিতরে যাতে সোশ্যাল ডিস্টেন্স বজায় রাখেন দর্শনার্থীরা, তার জন্য কড়া নজরদারিতেও থাকছেন পর্যাপ্ত নিরাপত্তারক্ষী৷ শুধু পার্কের ভিতরে নায়,গেটেও মোতায়েন করা হয়েছে নিরাপত্তারক্ষী৷

খোলার আগে সমগ্র পার্ক স্যানিটাইজ করা হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এছাড়া গত বৃহস্পতিবার থেকেই খুলে গিয়েছে নিকো পার্ক৷ তবে করোনা পরিস্থিতিতে শিশুদের খেলার মাঠ, পার্ক ইত্যাদি বন্ধই থাকছে৷ এখানেও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই জনসাধারণকে প্রবেশ করতে হবে৷

নিকো পার্কে অনলাইনে টিকিট কাটার ব্যবস্থা থাকছে৷ পাশাপাশি গেটে এসেও অফলাইনে টিকিট কাটা যাবে৷ ইকো পার্কের মত নিকো পার্কেও প্রবেশের সময়ে থাকছে থার্মাল চেকিং, হ্যান্ড স্যানিট্যাইজেশন এবং মাস্ক বাধ্যতামূলক। রাইডে ওঠার সময়ে দূরত্ব বিধি মানতে হবে৷

শিশুদের খাদ্য ও জল নিয়ে ভিতরে ঢোকা যাবে৷ এমনটা পার্ক কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর৷ অন্যদিকে ১৫ অক্টোবর থেকে রাজ্যে খুলে গিয়েছে বেশ কিছু সিনেমা হল। তবে আনলক ৫-এর এই পর্যায়ে সিনেমা দেখার জন্য বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র।

প্রায় ৭ মাস বন্ধ থাকার পর সিনেমা হল ও মাল্টিপ্লেক্সগুলিও খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র৷ খুলে দেওয়া হচ্ছে থিয়েটারও।

তবে কনটেনমেন্ট জোনের মধ্যে অবস্থিত যে সিনেমা হল, সেগুলি খোলার অনুমতি দেওয়া হয়নি। দর্শকদের মধ্যে সংক্রমণ ঠেকাতে বেশ কয়েকটি নিয়ম জারি করা হয়েছে।


সুত্র : কলকাতা২৪x৭

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য