অত্যন্ত উদ্বেগজনক সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চলছে প্লাজমা থেরাপি, সংক্রমণ ছড়াল মূত্রনালিতে

অত্যন্ত উদ্বেগজনক সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চলছে প্লাজমা থেরাপি, সংক্রমণ ছড়াল মূত্রনালিতে
Image source - news18

দুশ্চিন্তার উপশম হল না । হাসপাতালের তরফে জানানো হল, ভাল আছেন প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় । তাঁর অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটজনক । তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হতে পারে বলেও জানা গিয়েছে ।

মঙ্গলবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মিন্টো পার্কের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি । শুক্রবার, সন্ধের পর থেকে তাঁর অবস্থার অবনতি হয় । রক্তচাপ ওঠানামা শুরু হয়, কমে যায় অক্সিজেনের মাত্রা, শ্বাসকষ্ট শুরু হয় । ফলে রাতের দিকে আইটিইউ-তে স্থানান্তরিত করা হয় বাঙালির প্রিয় ‘অপু’কে । এই খবরে মন খারাপ হয়ে যায় আপামর বাঙালির । তারপর থেকে অবশ্য আরও দু’দিন কেটে গেলেও অবস্থার তেমন কোনও উন্নতি লক্ষ্য করা যায়নি ।

রবিবার সন্ধ্যার দিকে হাসপাতালের মেডিক্যাল বুলেটিনে জানানো হয়েছিল, তাঁর শারীরিক অবস্থার হেরফের হয়নি । তবে কিছুটা মানসিক অস্থিরতা দেখা গিয়েছিল । গতকাল গভীর রাতে অবশ্য জানা যায়, তাঁর মধ্যে অস্থিরতা বেড়েছে । সংক্রমণ ছড়িয়েছে মূত্রনালিতে । কিডনি ও হার্টে সমস্যা দেখা দিয়েছে । উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে ।

একইসঙ্গে প্লাজমা থেরাপি চলছে সৌমিত্রর । উল্লেখ্য, শনিবার রাতে সৌমিত্রকে দু’ইউনিট প্লাজমা দেওয়া হয়েছিল। রবিবার দেওয়া হয়েছে আরও এক ইউনিট। কিন্তু রাতের দিকে তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা। তৎপরতা বেড়েছে হাসপাতালেও। ITU-তে ২৪ ঘণ্টা তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখেছে ১৬ সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিম ।

আগে থেকেই ব্লাড প্রেসার, সুগার, সিওপিডি-র মতো গুচ্ছ রোগ রয়েছে সৌমিত্রর । গত বছর গুরুতর নিউমোনিয়ার শিকার হয়েছিলেন তিনি । সঙ্গে বয়সটাও এখন ৮৫-র কোঠায় । সমস্ত দিক বিচার বিবেচনা করেই সর্বতভাবে লড়াই চালাচ্ছেন চিকিৎসকরা ।

আনলক শুরু হতেই একাধিক অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে পুরোদমে শ্যুটিং শুরু করেছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় । গত ৩০ সেপ্টেম্বর শেষবার শ্যুটিংয়ে বেরিয়েছিলেন সৌমিত্র । ভারতলক্ষ্মী স্টুডিওয় একটি ডকুমেন্টরি ফিচারের শ্যুটিং ছিল তাঁর । সে দিন থেকেই তাঁর শরীরটা খারাপ হতে শুরু করে । করোনার লক্ষণ প্রকাশ পাওয়ায় সঙ্গে সঙ্গে টেস্ট করানো হয় । তখনই রিপোর্ট পজিটিভ আসে ।


সুত্র : নিউজ18

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য