হাথরসকান্ডে বিতর্কিত মন্তব্য বালিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরিন্দর সিং এবং , ধর্ষণের ঘটনাই ঘটেনি দাবি রঞ্জিত সিং শ্রীবাস্তবের

হাথরসকান্ডে বিতর্কিত মন্তব্য বালিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরিন্দর সিং এবং , ধর্ষণের ঘটনাই ঘটেনি দাবি রঞ্জিত সিং শ্রীবাস্তবের
Image source - hindustantimes

"শুধুমাত্র প্রশাসন ধর্ষণ রুখতে পারে না। প্রয়োজন সংস্কার, মেয়েদের সংস্কার শেখানোর দায়িত্ব মা-বাবার।" ধর্ষণের জন্য মেয়েদের কেই নিশানা করে বিতর্কিত মন্তব্য সুরিন্দর সিং এর।

অন্য আরেকজন বিজেপি নেতা রঞ্জিত সিং শ্রীবাস্তবের দাবি হাথরসে ধর্ষণের ঘটনাই ঘটেনি। প্রেমিকের সঙ্গে মারামারিতেই নাকি সম্ভবত মৃত্যু। সরকারের কাছে অনুদান বন্ধেরও দাবি জানিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয় মামলা খারিজের আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

রঞ্জিত সিং শ্রীবাস্তবের দাবি "হাথরসে ধর্ষণ নয়, প্রেমিকের সঙ্গে মারামারিতেই মৃত্যু। ঘাস কাটতে বাজরার ক্ষেতে কেন গিয়েছেল নির্যাতিতা? মারামারিতেই সম্ভত ভেঙ্গেছিল তরুণীর হাড়। এর জন্য অপরাধীদের শাস্তি হওয়া দরকার। কিন্তু যেখানে ধর্ষণের ঘটনাই ঘটেনি কীসের জন্য ২৫ লক্ষ টাকার আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।"

দুই বিজেপি নেতার দুরকম বিতর্কিত মন্তব্য। একজনের বক্তব্য ধর্ষণ যদি হয়েই থাকে তবে তার দায় মেয়েদের সংস্কারের উপর বর্তায়। পারিবারিক সংস্কারের উপর নির্ভর করে। অন্যজন তো বলেই দিলেন ধর্ষণ হয়নি, প্রেমিকের সঙ্গে মারামারিতেই মৃত্যু নির্যাতিতার, শিরদাঁড়ার হাড় ও জিভ কেটেছে নাকি এভাবেই।

এখানেই একাধিক প্রশ্ন উঠে আসে যদি তার দাবিই সঠিক হয়ে থাকে তাহলে এতো চাপানউতোর কীসের? কেনই বা সাংবাদিক মহলকে আটকানো হয়েছিল? কেন বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাদের আটকানো হয়েছিল? কেনই বা নির্যাতিতার দেহ তড়িঘড়ি পোড়ানোর জন্য এতো তৎপর হয়েছিল জেলা প্রশাসন?

বিতর্কিত এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর বক্তব্য "এগুলো খুব দুর্ভাগ্যজনক এবং রাস্কেলদের মতো কথা। ঘটনাটা ঘটল যা, যেরকম নৃশংস এবং অমানুষিক। মহিলাদের মর্যাদা রক্ষা দূরে থাক তাকে খুন হতে হল। খুন হওয়ার পর গোপনে শেষকৃত্য সম্পন্ন হল চূড়ান্ত অমর্যাদার সঙ্গে। এর পরও নির্যাতিতার চরিত্র নিয়ে যেভাবে বিজেপি নেতারা মন্তব্য শুরু করেছে তার থেকে বড় লজ্জার এবং নিন্দার কোনো ভাষা থাকতে পারে না।"

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য