বিরলতম ঘটনা SSKM হাসপাতালে, দুস্প্রাপ্য তালিকার রক্ত খুঁজে এনে প্রান বাঁচাল রোগীর


বিরলতম ঘটনা SSKM হাসপাতালে, দুস্প্রাপ্য তালিকার রক্ত খুঁজে এনে প্রান বাঁচাল রোগীর

দেশজুড়ে স্বাস্থ্য সঙ্কট চরমে। তারই মধ্যে বিরলতম ঘটনা SSKM হাসপাতালে। রোগীর ব্লাড গ্রুপ আমাদের চেনা চার গ্রুপ বা তালিকা A, B, AB অথবা O থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। তার শরীরে বইছে বোম্বে ব্লাড গ্রুপের (Bombay Blood Group) বিরলতম রক্ত। তবে এক্ষেত্রে রক্তের জন্য চিকিৎসা আটকে থাকেনি। এসএসকেএম (SSKM) এর কর্মীরা রক্ত জোগাড় করে প্রান বাঁচান রোগীর।

শুধু ডাক্তার নন, চিকিৎসাকর্মী এবং ব্লাড ব্যাঙ্কের কর্মীদের নিরলস চেস্টার ফলে সুস্থ হলেন ৩৮ বছরের যুবক। নোদাখালির বাসিন্দা মন্টু সরকার। দুর্ঘটনায় পা ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে কেটে বাদ গেছিল। তার অস্ত্রপ্রচার করতে গিয়ে দেখা গেল তার শরীরে বইছে বিরলতম বোম্বে ব্লাড গ্রুপের রক্ত।

কোথায় পাওয়া যাবে এই বিরলতম রক্ত? নাহলে তো অস্ত্রপ্রচার সম্ভব নয়। প্লাস্টিক সার্জেন সৌম্য গায়েনের কথায় " বোম্বে ব্লাড গ্রুপ সাধারনত খুব কম পাওয়া যায়। এই গোটা পশ্চিমবঙ্গে এই ব্লাড গ্রুপের সংখ্যার মানুষ মাত্র ৫ থেকে ৬ জন।"

শেষমেশ রক্তের সন্ধান মিলেছে। রাজ্যে বোম্বে ব্লাড যাদের আছে তাদের খুঁজে বের করা হয়। ভিন রাজ্য থেকে ওই ব্লাড সংগ্রহ করে আনা হয় এবং তারপর এই নজিরবিহীন অস্ত্রপ্রচার করা হয় মন্টু সরকারের।

এসএসকেএম এর প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান গৌতম গুহ জানিয়েছেন, "বোম্বে ব্লাড গ্রুপের রক্তের কোনো কেস আমি আমার জীবনে কখনো পাইনি। ব্লাড ব্যাঙ্কে এই গ্রুপের একটি আলাদা তালিকা থাকে। কারন বোম্বে ব্লাড গ্রুপের রোগীর রক্তের প্রয়োজন হলে শুধুমাত্র সেই গ্রুপ থেকেই নিতে হবে।"

এসএসকেএম ব্লাড ব্যাঙ্কের কর্তা প্রতীক দে জানিয়েছেন, "যারা রক্তদাতা তারা এগিয়ে এসেছেন বলেই এটা সম্ভব হয়েছে। একটা অ্যাসোসিয়েশান আছে বোম্বে গ্রুপের। তাদের মধ্যে একজন দাতা নাম মৃদুল দলুই এর সঙ্গে আমি যোগাযোগ করেছিলাম প্রথমে। উনিই এগিয়ে আসেন এবং রক্ত দান করেন।"

বিরল রক্ত জোগাড় করে প্রান বাচিয়েছেন ডাক্তারবাবুরা। কৃতজ্ঞতার ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন রোগী মন্টু সরকার।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য