পেঁয়াজ রপ্তানিতে কেন্দ্রের নিষেধাজ্ঞা, বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা পেঁয়াজ রপ্তানিকারকদের।

পেঁয়াজ রপ্তানিতে কেন্দ্রের নিষেধাজ্ঞা, বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা পেঁয়াজ রপ্তানিকারকদের।
Image source - banglainsider

পেঁয়াজ রপ্তানিতে কেন্দ্রের নিষেধাজ্ঞা। ঘুম ছুঠেছে পেঁয়াজ রপ্তানিকারকদের। বসিরহাটে ঘোজডাঙ্গা সীমান্তে থমকে রয়েছে শতাধিক পেঁয়াজের ট্রাক। দ্রুত ট্রাক না সরালে সেখানেই নষ্ট হয়ে যাবে কোটি টাকার পেঁয়াজ। বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের।

বাজারে পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া। দামে লাগাম টানতে রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের নির্দেশিকায় মাথায় হাত পেঁয়াজ রপ্তানিকারকদের। কারন প্রায় ২৫০-৩০০ ট্রাকে থাকা পেঁয়াজ অন্যত্র সরানো অতি প্রয়োজন। না হলে ট্রাকেই পচতে শুরু হবে কোটি কোটি টাকার টন টন পেঁয়াজ।

ঘোজডাঙ্গা সীমান্তের একজন পেঁয়াজ ব্যবসায়ী ইমরান কবীর জানিয়েছেন, "পেঁয়াজ যাবে না জানলে আমরা ট্রাকে লোড করতাম না। এখানে মোটামুটি ২৫০ থেকে ৩০০ ট্রাক দাড়িয়ে আছে। কিছু ট্রাকের পেঁয়াজ নষ্টও হয়ে গেছে। বড় ক্ষতির আশঙ্কায় আছি আমরা। "

লকডাউনের পর থেকেই ঘোজডাঙ্গা সীমান্ত দিয়ে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকে ভারত বাংলাদেশ বাণিজ্য। ব্যবসায়ীদের অভিযোগ লোকসানের খরা কাটিয়ে দুই দেশের বাণিজ্য আবার শুরু হতে না হতেই ফের ধাক্কা। অবিলম্বে সরকারী হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।

রাস্তা জুড়ে দাড়িয়ে আছে সারি সারি পেঁয়াজের ট্রাক। নির্দিষ্ট সময়ে না পৌছতে পেরে সমস্যায় পড়েছেন চালক ও খালাসিরাও। ভোগান্তি বেড়েছে তাদেরও।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য