ভয়ঙ্কর কাণ্ড রাতের বাইপাসে, কলকাতায় চলন্ত গাড়িতে তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা রুখল দম্পতি

 

ভয়ঙ্কর কাণ্ড রাতের বাইপাসে, কলকাতায় চলন্ত গাড়িতে তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা রুখল দম্পতি
(বাঁ দিকে) নীলাঞ্জনা, (ডান দিকে) উদ্ধার হওয়া তরুণী।   Image Source - Khaboronline

রাতের কলকাতায় চলন্ত গাড়িতে তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা রুখল দম্পতি। তরুণীকে উদ্ধার করলেও অভিযুক্তের গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর জখম উদ্ধারকারী মহিলা। বাইপাসের ধারে একটি আবাসন থেকে ফেরার পথে ওই দম্পতি দেখেন গাড়িতে এক তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা হচ্ছে। তৎক্ষণাৎ এগিয়ে আসেন ওই দম্পতি। 

এই অবস্থায় অভিযুক্ত যুবক তরুণীকে ফেলে গাড়ি নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পলায়নরত গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর আহত হন উদ্ধারকারী মহিলা। তার স্বামীর কথায় ওই মহিলার পায়ের উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে চলে যায় অভিযুক্ত। উদ্ধারকারী মহিলা বাইপাসের ধারে এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে আনন্দপুর থানার পুলিশ। আটক করা হয়েছে অভিযুক্ত যুবককে। অভিযুক্তের নাম অমিতাভ বসু।

উদ্ধারকারী মহিলার স্বামী দ্বীপবাবু স্ত্রী ও কন্যাসহ শ্বশুরবাড়ি গিয়েছিলেন। শনিবার রাত ১২টার আশেপাশে তিনি 'অভ্যুদয়' কমপ্লেক্স থেকে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরোন ঠিক সেই সময় হোন্ডা সিটি গাড়িটি তার গাড়ির পেছনে ছিল, যেটি চালাচ্ছিল অভিযুক্ত অমিতাভ বসু। আচমকা এই দম্পতি চিৎকার শোনেন এবং সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে গাড়ি থামিয়ে গাড়ির পিছনে থাকা দ্বীপবাবুর স্ত্রী নীলাঞ্জনা চট্টোপাধ্যায় গাড়ি থেকে নেমে আসেন। 

যখন তিনি গাড়ি থেকে নেমে আসেন অভিযুক্ত অমিতাভ বসু বিপদ বুঝতে পেরে তার পাশে থাকা মহিলা যাকে তিনি মারধর করছিলেন তাকে ফেলে দেন এবং নীলাঞ্জনাদেবী যিনি গাড়িটিকে আটকানোর চেস্টা করেন তাকে জখম করে পালিয়ে জান।

ঘটনার স্থানটি আনন্দপুর থানার মধ্যে পড়ে। এক্ষেত্রে পুলিশ মাত্র কয়েক মিনিটে আম্বুলেন্স নিয়ে আসে এবং কিছুক্ষণের মধ্যে অভিযুক্তকে আটক করে। 

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে কিছুদিন আগে আলাপ হয়েছিল অমিতাভ বসুর সঙ্গে নির্যাতিতা মহিলার। গতকাল রাতে তারা একটি ড্রাইভে বেরোন এরপর তার সঙ্গে কি ঘটে তা তদন্তসাপেক্ষ। মনে করা হচ্ছে তার উপর জোরজবরদস্তি করা হয়। গোটা ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তার অপরাধ প্রমান হলে তাকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

গোটা ঘটনায় আবার একবার রাতের শহরে মহিলার নিরাপত্তা নিয়ে আবার প্রশ্ন উঠে এল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য