রোগী মৃত্যুর ৭২ ঘণ্টা পর মিলল খবর। কলকাতা মেডিকেল কলেজের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ

 

রোগী মৃত্যুর ৭২ ঘণ্টা পর মিলল খবর। কলকাতা মেডিকেল কলেজের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ
Image Source : wikipedia

কলকাতা : কলকাতা মেডিকেল কলেজ মানেই যেন অভিযোগের পাহাড়। কখনো চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তো কখনো রোগী মৃত্যুর ঘটনা চেপে রাখার অভিযোগ। এবারও রোগী মৃত্যুর ঘটনা চেপে রাখার ঘটনা ঘটল। মেডিকেল কর্তৃপক্ষের দাবি লিখিত অভিযোগ পেলে ঘটনা খতিয়ে দেখা হবে।

এমন অভিযোগ আগেও উঠেছে আবারও উঠল। রোগীর মৃত্যুর খবর চেপে রেখে পরিবারকে হেনস্থার অভিযোগ কলকাতা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। পরিবারের দাবি রোগীর মৃত্যুর খবর পরিবারকে জানানো হয় মৃত্যুর ৭২ ঘণ্টা পর। এমনকি মুখে একের পর এক আশ্বাস দিলেও রোগীর আদপে কোনো চিকিৎসা হয়নি বলেও অভিযোগ পরিবারের।

ঘটনার সূত্রপাত ২৫শে জুলাই। ২৫ শে জুলাই শ্বাসকষ্ট নিয়ে এনআরএসে ভর্তি হন টালিগঞ্জের কৃষ্ণ সূত্রধর। করোনা পজেটিভ হওয়ায় ২৮ শে জুলাই কলকাতা মেডিকেলে রেফার করা হয়। গ্রীন বিল্ডিংএ তিনতলায় ৩০৪ নং বেডে ভর্তি ছিলেন রোগী। পরিবারের অভিযোগ চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় রোগী বারবার বলতেন মেডিকেলে তার হার্টের কোনোরকম চিকিৎসা হচ্ছে না। হাসপাতাল যদিও দাবি করে চিকিৎসা ঠিক মতই হচ্ছে। 

৩১ শে অগাস্ট হটাৎ অবস্থার পরিবর্তন। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানায় হাসপাতাল। গত মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে গেলে পরিবারকে জানানো হয় রোগীকে ক্রিটিকাল কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে। অথচ রোগীর পরিবারের দাবি হাসপাতালের হেল্পলাইনে ফোন করলে তাদের জানানো হয় রোগী কৃষ্ণ সূত্রধর ক্রিটিকাল কেয়ার ইউনিটে ভর্তি নেই। একরাশ উদ্বেগ নিয়ে বুধবার মেডিকেলে আসার সময় দুঃসংবাদ পায় পরিবার।

তাদের দাবি মেডিকেল কর্তৃপক্ষ জানায় কৃষ্ণ সূত্রধর মারা গিয়েছেন। কিন্তু কবে? পরিবারের দাবি রোগী রবিবার মারা গেলেও তাদের জানানো হয় বুধবার।

কলকাতা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষের বক্তব্য এ ঘটনা নিয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ জমা পড়েনি, অভিযোগ পেলে খতিয়ে দেখা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য